মহিলা সিটে পুরুষ বসলে কারাদণ্ড বা ৫ হাজার টাকা জরিমানা

  • Md Sohel 1661 01/04/2017

মহিলাদের প্রতিনিয়ত অফিস এ কিংবা স্কুল-কলেজে যাতায়াতের সময় অনেক হয়রানির শিকার হতে হয় । প্রতিটি বাসেই মহিলাদের জন্য নির্দিষ্ট আসন থাকা সত্ত্বেও অধিকাংশ সময়ে দেখা যায় পুরুষরা তা দখল করে রাখে । ফলে মহিলাদের প্রতিদিনই পুরুষদের সাথে একরকম যুদ্ধ করেই অফিস আদালতে যেতে হয় । মহিলাদের এই হয়রানি থেকে মুক্তি দিতে বাংলাদেশ সরকার এক নতুন আইন জারি করলেন ।

এখন থেকে গণপরিবহনে নারী, শিশু, প্রতিবন্ধী ও বয়স্কদের জন্য সংরক্ষিত আসনে অন্য কোনো যাত্রী বসলে এক মাসের কারাদণ্ড বা ৫ হাজার টাকা জরিমানা গুণতে হবে।

এই শাস্তির বিধান রেখে সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ নতুন আইনের যে খসড়া করেছে, তাতে সোমবার সম্মতি দিয়েছে মন্ত্রিসভা। সচিবালয়ে সোমবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভার বৈঠকে ‘সড়ক পরিবহন আইন- ২০১৭’ এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন দেওয়া হয়।

 “মহিলাদের সিটে বসতে না দিয়ে যদি অন্য কেউ (পুরুষ যাত্রী) বসে যায় তার জন্য একমাসের জেল বা ৫ হাজার টাকা জরিমানার প্রস্তাব করা হয়েছে।”

সচিবালয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে বৈঠকে ‘সড়ক পরিবহন আইন- ২০১৭’ এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন পায়।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, উচ্চ আদালতের নির্দেশে ১৯৮৩ সালের মোটরযান অধ্যাদেশকে নতুন আইনে পরিণত করা হয়েছে।

নতুন আইনে ড্রাইভিং লাইসেন্স পেতে ন্যূনতম অষ্টম শ্রেণি পাসের বাধ্যবাধকতা এবং গাড়ি চালানোর সময় মোবাইল ফোন ব্যবহার করলে শাস্তির বিধান রাখা হয়েছে।

সভা শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম জানান, মোটরযান চলাচলে সাধারণ নির্দেশাবলী নামে একটি নতুন ধারায় ২৫টি নির্দেশনা যুক্ত করা হয়েছে।

তিনি সাংবাদিকদের জানান যে, “মহিলা, শিশু, প্রতিবন্ধী এবং বয়োজ্যেষ্ঠ যাত্রীর জন্য সংরক্ষিত আসনে অন্য কোনো যাত্রী বসবেন না বা বসার অনুমতি দেওয়া যাবে না। এটা লঙ্ঘন করলে একমাসের কারাদণ্ড বা পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা কিংবা উভয়দণ্ড হতে পারে।