এক শহরের(রাজশাহী) একটি সকাল 10/10/2016



ছোট আর পরিষ্কার পরিছন্নে ঘেরা, অনেকটা পেন্সিলে আঁকা ছবির মতো এমনই একটা শহর। যে শহরের বাড়িগুলো আকাশ ছোঁয়া অট্টালিকা নয়, প্রতিটা রাস্তাই যেন আলাদা আলাদাভাবে সাজানো ।অন্য কোন দেশের অন্য কোন শহর নয়, বলছি আমাদের দেশের উত্তরাঞ্চলের (উত্তরবঙ্গের) একটি প্রধান শহর রাজশাহী এর কথা।

এ শহরের সকালের রূপটা সময়ের সাথে সাথে পরিবর্তন হয়। গরম কালে এর এক রূপ আবার শীতের সময়ে আরেক রূপ।গরমকালে খুব সকালে বেরিয়ে পড়তে পারেন, রাস্তার আশে পাশে দেখবেন পরিষ্কার পরিছন্নতা, পাবেন ফ্রেশ বাতাসও। রাজশাহীর পদ্মা নদীর কথাটা না বললেই নয়, সকালে কিছুটা সময় থাকতে পারেন নদীর পাড়ে। হালকা ঠাণ্ডা শীতল বাতাস আপনার মনকে করে তুলবে আরও ফ্রেশ। দিনটা শুধু আপনার, সকালের শুরুটা যখন ভালো তখন দিন শেষে আরও একটা সকালের অপেক্ষা।

রাতভর ঝুম বৃষ্টি এর পরে ভোরের সকাল, সকালের ঠাণ্ডা বাতাস আর বৃষ্টি ভেজা রাস্তাটা খুব সকালে দেখেছেন কি কখনো? হয়তো দেখেছেন, তবে বিশেষ কোন মানুষ এর সাথে নয়। শুধুমাত্র এক বার এ রাজশাহী শহরের ঘোষপাড়ার মোড়টা থেকে অথবা ছি.এন.বি মোড় থেকে সকাল সকালে এক কাপ চা খেয়ে সোজা চলে যেতে পারেন পদ্মার পাড়ে। হাঁটুন সে পথটুকু এক সাথে। ছোট্ট পথটুকু হাঁটার মাঝে হঠাৎ যদি আপনার প্রিয় মানুষটি আপনার জন্য মিষ্টি গন্ধ আর সবুজ পাতাই মোড়ানো জেসমিন ফুল আপানর হাতে তুলে দেয়ই দেখবেন সকালের সিগ্ধতা, ঠাণ্ডা বাতাস আর চারিপাশের পরিবেশ, ভালোলাগার মাত্রাটা অন্য রকম ভাবে বাড়িয়ে দিবে। সূর্যের আলোটা তীব্র না হওয়ার আগপর্যন্ত আরও কিছুটা সময় বসুন। নদীর পানিতে একটু দূরে তাকালেই দেখবেন হাল্কা কুয়াশার আবির্ভাব ঘটেছে পানির উপর।

রাজশাহীর হাড় কাঁপানো শীতে বন্ধুদের সাথে আড্ডা আর শীতের পিঠার মজাটা সকালেই পাওয়া যায়, রাস্তার পাশে বসা ছোট ছোট দোকান গুলোতে। আমরা অনেকই আছি যারা ধুপি পিঠা অথবা ভাপা পিঠা খেতে পছন্দ করি। সকাল সকাল বেরিয়ে পড়তে পারেন পিঠা খেতে।

যদি আপনি রাজশাহী শহরের হয়ে না থাকেন তাহলে বাস থেকে নামার পরেই যখন দেখবেন আসে পাশে কোন যানবাহন এর জ্যাম নাই,শান্ত পরিবেশ,সবুজে ঘেরা আর ছোট ছোট বাড়িঘর তখন বুঝতে পারবেন যে আপনি পৌঁছে গেছেন শান্তির শহর রাজশাহীতে।

রাজশাহীর কিছু কথা হয়ত সবার জানা তারপরও পুনরাই বলা, রাজশাহী সুপ্রাচীন ঐতিহ্য মণ্ডিত একটি শহর। অনেক আগে থেকে এই শহরটি প্রাচীন বাংলায় পরিচিত ছিল। শুধু এখন নয়, প্রাচীন কাল থেকেই এ সৌন্দর্য বহন করে চলেছে। রাজশাহী তার আকর্ষণীয় রেশমীবস্ত্র  (Silk), আম, লিচু এবং মিস্টান্ন সামগ্রীর জন্য প্রসিদ্ধ। রাজশাহী শহরের আর এক নাম রেশমনগরী (Silk City)।

রেশমী বস্ত্রের কারণে রাজশাহীকে রেশমনগরী (Silk City) নামে ডাকা হয়। রাজশাহী শহরে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান রয়েছে যাদের অনেকগুলির খ্যাতি দেশের গণ্ডি ছাড়িয়ে বিদেশেও ছড়িয়ে পড়েছে। নামকরা এসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের জন্য রাজশাহী শহর শিক্ষানগরী নামেও পরিচিত।

আমার অনুভূতি গুলো শুধুই আমার মতো। একবার নয় বার বারই প্রেমে পড়ে যাই এ শহরের। একবার ঘুরে আসুন রাজশাহী শহরে, রাজশাহী আপনাকে বরণ করে নিবে সকালের মিষ্টি রোদ আর পড়ন্ত বিকালের ভালোবাসা দিয়ে।

যারা ভ্রমণ করতে পছন্দ করেন, তারা ভ্রমণ প্যাকেজ সম্পর্কিত কোন তথ্য পেতে ভিজিট করুনঃ www.tour.com.bd

 

লিখেছেন : ইফফাত আরা (ইরানী) 

You might like