ভারতীয় ভিসা: মোবাইলে যেসব প্রশ্নের মুখোমুখি হই 09/06/2016



ভারতীয় ভিসা পাওয়ার জটিলতা রোধে ভারতীয় হাই কমিশন ঈদ ভিসা ক্যাম্প এর আয়োজন করেছে । কিন্তু অনেকেই জানেন না যে কিভাবে অনলাইন এ ভিসার জন্য আবেদন করতে হয় এবং কি কি ডকুমেন্টস লাগে ? মোবাইলে আমরা প্রতিনিয়ত যেসব প্রশ্নের মুখোমুখি হচ্ছি তার উত্তর গুলো নিচে তুলে ধরা হল । 

প্রশ্ন: ভিসা ক্যাম্প কোথায় হচ্ছে?
উত্তর: ঈদ ভিসা ক্যাম্প ভারতীয় হাই কমিশনের নতুন চ্যান্সেরি কমপ্লেক্স ১-৩ জাতিসংঘ সড়ক, বারিধারায়।

প্রশ্ন: কত দিন চলবে এই ক্যাম্প?
উত্তর: ক্যাম্প চলবে ৪-১৬ জুন। তবে ১০ জুন শুক্রবার বন্ধ থাকবে বিশেষ এ ক্যাম্প।

প্রশ্ন: কেন ভিসা ক্যাম্প?
উত্তর: যেসব বাংলাদেশি নাগরিকের সাক্ষাতের তারিখ/ই-টোকেন নেই শুধুমাত্র তাদের ট্যুরিস্ট ভিসা আবেদনপত্র গ্রহণের জন্য এ ঈদ ক্যাম্পের আয়োজন করা হয়েছে। যেসব আবেদনকারীর সাক্ষাতের তারিখ আছে তারা ঢাকার গুলশান, ধানমণ্ডি, উত্তরা ও মতিঝিল এবং ঢাকার বাইরে বরিশাল, ময়মনসিংহ ও খুলনায় আইভিএসি কেন্দ্রে ভিসা আবেদন জমা দিতে পারবেন। মেডিকেল, বিজনেস ও ‍অন্যান্য ভিসা বিভাগের আবেদনপত্র সংশ্লিষ্ট আইভিএসি কেন্দ্রেই গ্রহণ করা হবে।

প্রশ্ন: এই ক্যাম্পের মাধ্যমে কারা আবেদন করতে পারবে?
উত্তর: ঢাকা, খুলনা, বরিশাল ও ময়মনসিংহ বিভাগে বসবাসকারী বাংলাদেশি নাগরিকদের জন্য শুধুমাত্র এ ক্যাম্প খোলা থাকবে। আবেদনকারীদের স্বশরীরে উপস্থিত হয়ে আবেদনপত্র জমা দিতে হবে। তবে একসঙ্গে ভ্রমণেচ্ছু পরিবারের সদস্যদের (পিতা-মাতা, ছেলে-মেয়ে, স্বামী-স্ত্রী) পক্ষে একজন আবেদনপত্র জমা দিলেই হবে।আবেদনকারীর পাসপোর্টের মেয়াদ আবেদন করার তারিখে কমপক্ষে ৬ মাসের মেয়াদ থাকতে হবে এবং পাসপোর্টে কমপক্ষে দুই পৃষ্ঠা খালি থাকতে হবে।

প্রশ্ন: নির্দেশগুলো আমি সরাসরি দেখতে চাই।
উত্তর: আবেদনপত্র জমা দেওয়ার আগে সতর্কতার সঙ্গে নির্দেশাবলী পড়তে এই লিঙ্কে ক্লিক করুন:www.visacamp/hcidhaka.gov.in

প্রশ্ন: এসএমএস ওটিপি (ওয়ান টাইম পাসওয়ার্ড) লাগবে?
উত্তর: ভিসা ক্যাম্পের (৪-১৬ জুন, ২০১৬) জন্য প্রয়োজন নেই। নিয়মিত আবেদন করার (IVAC) থেকে করলে লাগবে।

প্রশ্ন: ভিসার জন্য কত টাকা লাগবে?
উত্তর: ভিসা আবেদন গ্রহণের জন্য ভারতীয় হাইকমিশনের আউটসোসিং এজেন্সি ইন্ডিয়ান ভিসা অ্যাপলিকেশন সেন্টারের ভিসা প্রসেসিং ফি ৬০০ টাকা। ভিসা প্রসেসিং ফি ছাড়া আর কোনো ভিসা ফি নেই। ভিসা প্রদানের ক্ষেত্রে ভারতীয় হাইকমিশনের কোনো এজেন্ট বা মাধ্যম নেই। ভিসা করে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দানকারী ব্যক্তিকে টাকা দিতে নিষেধ করা হয়েছে।

প্রশ্ন: টাইম আউট হয়ে যায় বার বার, কি করব?
উত্তর: সেইভ করা অংশগুলো আবার ‘Partial completed application’ অপশন ব্যবহার করে খুজে বের করে শেষ করুন।

প্রশ্ন: ফরম কয়দিনের মধ্যে জমা দিতে হবে?
উত্তর: পুরণকৃত ফর্ম ৫ দিনের মধ্যে জমা দিতে হবে। নতুবা আবার নতুন করে ফরম ফিলা আপ করতে হবে।

প্রশ্ন: আমি না গেলে হবে?
উত্তর: পাসপোর্টধারীকে যাওয়া লাগবে। কিছু ব্যতিক্রম আছে, যেমন একই পরিবারের সবার ভিসার জন্য একজন (স্বামী/স্ত্রী, বাবা/মা, ছেলে/মেয়ে আসলে হবে)

প্রশ্ন: বাংলাদেশ সিলেক্ট করতে পারিছ না কেন?
উত্তর আপনি ভুল সাইট বেছে নিয়েছেন। সঠিক সাইটের ঠিকানা (www.ivacbd.com)

প্রশ্ন: কি কি কাগজ পত্র নিতে হবে?
উত্তর: লম্বা লিস্ট! সংযুক্ত ছবি দেখুন।Indian-Visa2

প্রশ্ন: ব্যাংক স্টেটমেন্ট ছাড়া শুধু ডলার এন্ডোরসমেন্ট করা থাকলে হবে না?
উত্তর: এন্ডোরসমেন্ট অবশ্যই ব্যাংক থেকে করতে হবে। কোনো মানি এক্সচেঞ্জ থেকে করা যাবে না।

প্রশ্ন: অন্য পাসপোর্টের তথ্য দিতে হবে?
উত্তর: শুধুমাত্র দ্বৈত নাগরিকত্ব আছে এরকম লোকজনের অন্য পাসপোর্টের তথ্য লাগবে। অন্য সব ক্ষেত্রে ‘নো’ অপশন সিলেক্ট করবেন।

প্রশ্ন: পুরাতন পাসপোর্ট কি সাথে জমা দিতে হবে?
উত্তর: অবশ্যই নতুন পাসপোর্টের সাথে পুরাতন পাসপোর্ট জমা দিতে হবে।

প্রশ্ন: ভারতে রেফারেন্স দেয়ার মত কেউ নেই, আমার কি হবে?
উত্তর: কিচ্ছু হবে না। যে জায়গায় যাবেন সেখানের একটা হোটেলের গুগল সার্চ করে নাম, ঠিকানা ও ফোন নাম্বার রেফারেন্সের ঘরে লিখুন।

প্রশ্ন: দেশে রেফারেন্স কাকে দেব?
উত্তর: আপনার নিকটাত্মীয়/ভাই-বোন/বন্ধু/মা-বাবা/স্বামী-স্ত্রী যে আপনার সাথে ভারতে যাবে না এমন একজনের দিবেন।

প্রশ্ন: আমি তো ১০টা জায়গায় যাবো/থাকবো। সবগুলোই এন্ট্রি দেয়া লাগবে?
উত্তর: আপনার হাতে অফুরন্ত সময় থাকলে দেন। না হলে ১/২টা দিলেই হবে।

প্রশ্ন: কোন বর্ডার সিলেক্ট করব?
উত্তর: আপনি কোথায় যাবেন সেটার উপর নির্ভর করে। অধিকাংশ লোকের জন্য বাই এয়ার/হরিদাসপুর (বেনোপল হয়ে) অপশন দরকার পড়ে। আপনি যদি দার্জিলিং দিয়ে ঢোকার ইচ্ছে থাকে তবে চেংড়াবান্দা সিলেক্ট করবেন। আর মেঘালয়ের জন্য ডাউকি। এভাবে আরো অনেকগুলো অপশন আছে।

প্রশ্ন: ১৫০ ডলার এনডোর্স করা আছে, আমার কি ব্যাংক স্টেটমেন্ট লাগবে?
উত্তর: না, একটা হলেই চলবে।

প্রশ্ন: আমার ক্রেডিট কার্ড আছে, আমার কি ব্যাংক স্টেটমেন্ট বা ১৫০ ডলার এনডোর্স করা লাগবে? 
উত্তর: না। তবে অবশ্যই ক্রেডিট কার্ড সংশ্লিষ্ট ব্যাংক থেকে পাসপোর্ট এনডোর্স করা থাকতে হবে।

প্রশ্ন: বাই রোডে যেয়ে বাই এয়ারে আসতে পারবো? অথবা উল্টোটা?
উত্তর: বাইরোডে যেয়ে বাই এয়ারে এবং বাই এয়ারে যেয়ে বাই রোডে ফিরতে পারবেন। তবে বাই এয়ারের ভিসা দিয়ে বাই রোডে যেতে পারবেন না (এজন্য বাই এয়ার/হরিদাসপুরটা ভালো অপশন, দুটোই করা যায়)।

প্রশ্ন: আমার মাল্টিপল এন্ট্রি ভিসা আছে, আমি বাই রোডে নেপাল/ভুটান যেতে পারবো?
উত্তর: পারবেন না, ট্রানজিট ভিসা লাগবে।

এবারের ঈদে আমাদের দার্জিলিং প্যাকেজ :

কোন রকম ই-টোকেনের ঝামেলা ছাড়াই দার্জিলিং, মিরিক, কালিম্পং ঘুরে আসুন 
জন প্রতি মাত্র ১৫,৫০০/- টাকা, (৫ দিন/ ৫ রাত )
বুকিংয়ের জন্য কল করুন ০১৮১১৪৮০৮৩৩, ০১৮১১৪৮০৮৩২ 
ঈদের ছুটিতে আপনার পরিবারের সবাইকে নিয়ে ঘুরে আসুন প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের নগরী এবং সপ্নভুমি দার্জিলিং থেকে । ঈদ উপলক্ষ্যে শুধুমাত্র আমরাই দিচ্ছি দার্জিলিং ভ্রমনে স্পেশাল বাম্পার অফার ! 
গ্রুপ ট্যুর : ০৮ জুলাই ২০১৬ ইং 
বুকিং শেষ তারিখ: ২০ জুন ২০১৬ ইং
=========================
প্যাকেজের অন্তর্ভুক্ত
* ঢাকা থেকে শিলিগুড়ি-শিলিগুড়ি থেকে ঢাকা রির্টান বাস টিকেট
* ৩ রাত হোটেলে থাকার ব্যাবস্থা
* প্রতিদিন সকালের নাস্তা, দুপুর ও রাতের খাবার
* সাইটসীয়িং দার্জিলিং, মিরিক, কালিম্পং
* শিলিগুড়ি থেকে দার্জিলিং টাটা সুম জীপে ভ্রমণ 
* অভিজ্ঞ গাইড সুবিধা 
===========================
প্যাকেজের অন্তর্ভুক্ত নয় :
* ভিসা ফি 
* ট্রাভেল ট্যাক্স 
* ব্যক্তিগত খরচসমুহ 
===========================
ভিসা প্রসেসিং করার প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টসের তালিকাঃ
১। ৬ মাসের ভ্যালিড পাসপোর্ট 
২। ব্যাংক ষ্টেটম্যান্ট (বিগত ৩/৬ মাসের)
৩। চাকুরীজীবীদের জন্যে অফিস থেকে এন ও সি লেটার (নো অবজেকশন সার্টিফিকেট),
৪। ব্যবসায়ীদের জন্যে ট্রেড লাইসেন্স ইংরেজীতে অনুবাদসহ নোটারীকপি,
৫। কোম্পানী প্যাড ও ভিজিটিং কার্ড,
৬। অফিসের আইডি কার্ডের কপি (চাকুরীজীবীদের জন্যে),
৭। ন্যাশনাল আইডি কার্ডের কপি
৮। ছবি (২''/২'', ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড সাদা হতে হবে)
৯। বিদু্ৎ বিলের কপি
(ঢাকা থকে শিলিগুড়ি-শিলিগুড়ি থেকে ঢাকা বাসে থাকাকালীন সময়ে আমরা কোন খাবার দেব না) 
======বুকিং পলিসি======
আমাদের এখানে আপনি ২ ভাবে বুকিং দিতে পারবেন ।
বুকিং কনফার্ম করতে জনপ্রতি ন্যুনতম ৫,০০০ টাকা জমা দিতে হবে নিম্নোক্ত ব্র্যাক ব্যাংক একাউন্ট অথবা বিকাশ এঃ 
ব্রাক ব্যাংক: 
Brac Bank Account Name : Tour.com.bd
Brac Bank Account Number : 1512203027806001
বিকাশ নাম্বার: ০১৮১১৪৮০৮২৬
টাকা জমা দেয়ার পর অবশ্যই নিচের নাম্বারে যোগাযোগ করে আপনার নাম, মোবাইল নাম্বার জানিয়ে দেবেন। 
** বুকিং এর জন্য কল করুন : ০১৮১১৪৮০৮৩৩, ০১৮১১৪৮০৮৩২
======শিশু পলিসি======
০-৩ বছর :কোন খরচ লাগবেনা (বাবা মার সাথে থাকবে, বাসে বাবা মার সাথে বসবে, আলাদা খাবার পাবেনা )
আমাদের সঙ্গে যোগ দিতে চাইলে ১৫ই রমযানের মধ্যেই বুকিং দিতে হবে । 
====== যা যা সঙ্গে রাখবেন=======
-যথাসম্ভব হালকা ব্যাকপ্যাকে ৫ দিন এর ভ্রমন উপযোগী কাপড় চোপড় সাথে নিতে হবে। ব্যাকপ্যাক ভারী না করাই বুদ্ধিমানের কাজ হবে ।
-রোঁদ বৃষ্টির সতর্কতা স্বরূপ লুঙ্গী, গামছা, সানগ্লাস, ক্যাপ ও ছাতা ( মোবাইল, ক্যামেরা বৃষ্টির হাত থেকে বাচানোর জন্য পলিথিন) সাথে নিবেন।


=========সুবিধা /অসুবিধা======= 
-যেহেতু গ্রুপ ট্যুর কিছু অসুবিধা হতে পারে, সবকিছু আপনার মনের মত নাও হতে পারে । তাই সবকিছু মেনে নেবার মনমানসিকতা থাকাটা অত্যন্ত জরুরি এবং যেকোনো প্রয়োজন বা অসুবিধার বিষয়ে দলনেতার সাথে কথা বলে নিবেন। ভ্রমণ সঙ্গীদের সাথে যথা সম্ভব ভাল আচরন করবেন, সব থেকে ভাল হয় যদি বন্ধুত্ব করে ফেলতে পারেন। এতে আপনার ভ্রমনটাই আনন্দদায়ক হয়ে উঠবে ।
-সর্বোপরি সবচেয়ে জরুরি হল যেখানে যাচ্ছেন সেই পরিবেশের সাথে নিজেকে মানিয়ে নেয়ার একটা মন মানসিকতা থাকা।

http://tour.com.bd/tours/Darjeeling-Mirik-Kalimpong

You might like