ই- টোকেন ছাড়াই পাবেন ভারতীয় ভিসা 30/05/2016



ঢাকায় ভারতীয় দূতাবাস তাদের ভিসা প্রক্রিয়ায় পরিবর্তন এনেছে। নতুন নিয়মে আজ থেকে টুরিস্ট ভিসার আবেদনকারীদের সাক্ষাতের তারিখ একবার ব্যবহার যোগ্য একটি পাসওয়ার্ড মোবাইল ফোনে এসএমএস করবে ভারতীয় দূতাবাস।

এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে ঢাকায় ভারতীয় হাই কমিশন জানাচ্ছে, এসএমএসটি দেখিয়ে আবেদনকারীদের ভারতীয় ভিসা আবেদন কেন্দ্র আইভিএসিতে ঢুকতে হবে এবং আবেদনপত্র জমা দিতে হবে।

এছাড়া আবেদনকারীদের নিজের মোবাইল নম্বরসহ অন-লাইন সাক্ষাতের জন্য আবেদন করতে হবে।

তবে, ৫ই জুন পর্যন্ত যেসব আবেদনকারী বর্তমান ব্যবস্থায় সাক্ষাতের জন্য তারিখ পেয়েছেন, তাদের জন্য নতুন নির্দেশনা প্রযোজ্য হবে না।

এছাড়া সাক্ষাতের তারিখ বা ই-টোকেন ছাড়া ট্যুরিস্ট ভিসার আবেদন গ্রহণের জন্য বিশেষ ঈদ ক্যাম্পের আয়োজন করেছে ঢাকার ভারতীয় হাইকমিশন, যা জুনের চার তারিখ থেকে শুরু হবে বলে জানানো হয়েছে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে। যেসব আবেদনকারীর সাক্ষাতের তারিখ আছে তারা ঢাকার গুলশান, ধানমণ্ডি, উত্তরা ও মতিঝিল এবং ঢাকার বাইরে বরিশাল, ময়মনসিংহ ও খুলনায় আইভিএসি কেন্দ্রে ভিসা আবেদন জমা দিতে পারবেন। মেডিক্যাল, বিজনেস ও অন্যান্য ভিসা বিভাগের আবেদনপত্র সংশ্লিষ্ট আইভিএসি কেন্দ্রগুলোতে গ্রহণ করা হবে।

সাক্ষাতের তারিখ নির্ধারণের জন্য দূতাবাসের এখনকার যে পদ্ধতি কার্যকর রয়েছে তা নিয়ে বাংলাদেশে বিস্তর বিতর্ক রয়েছে।

ভিসা প্রার্থীদের অভিযোগ অর্থ লেনদেন ছাড়া বাংলাদেশের কোন ভিসা প্রার্থীই ভারতীয় দূতাবাসে সাক্ষাতের তারিখ নিতে পারেন না।

ভিসা পেতে অর্থের বিনিময়ে ই-টোকেন পাবার বিষয়টি ঢাকায় ভারতীয় দূতাবাসের নজরে আনা হলে, এ মাসের শুরুতে দূতাবাসের তরফ থেকে লিখিতভাবে বিবিসি বাংলাকে জানানো হয়েছে যে ভিসার জন্য তাদের কোন এজেন্ট নেই।

ভারতের ভিসা পাওয়ার জটিলতার বিরুদ্ধে বাংলাদেশে সম্প্রতি যারা আন্দোলন করেছিলেন, তাদের আশা নতুন ব্যবস্থায় ভিসা পাওয়ার জটিলতা কিছুটা হলেও কমবে।

হেল্পলাইন নাম্বারঃ ০৯৬১২ ৩৩৩৬৬৬ এবং ০৯৬১৪ ৩৩৩৬৬৬

ইন্ডিয়ান হাই কমিশনের ফেইসবুক লিঙ্কঃ https://www.facebook.com/IndiaInBangladesh

আবেদনপত্র জমা দেওয়ার আগে আগ্রহীরা নির্দেশাবলি পাবেন এই লিঙ্কে- http://www.hcidhaka.gov.in/

ভিসা আবেদনের জন্য এই লিংকটি ক্লিক করুনঃ http://indianvisa-bangladesh.nic.in/visa/index.html অথবা http://indianvisa-bangladesh.nic.in/visa/info1.jsp

 

সূত্রঃ বিবিসি বাংলা

You might like