মধুচন্দ্রীমায় বিশ্বসেরা 26/05/2016



বিয়ে মানে একই জীবনের নতুন নাম। নতুন একটা মানুষের আগমন,যার সাথে ভাগ করে নিতে হয় সব সুখ-দুঃখ। নতুন বিয়ের পর প্রিয় মানুষটিকে নিয়ে ঘুরতে যাওয়ার প্লান যেন আনন্দের সময়গুলোকে আরও দীর্ঘস্থা্যী করে। বাংলায় বলতে গেলে যাকে বলে মধুচন্দ্রীমা। কিন্তু মধুচন্দ্রীমা কোথায় যাবেন এ নিয়ে পরতে হয় দ্বীধা-দ্বন্দ্বে। তাই আজকের আয়োজনে থাকছে এই দ্বন্দ্বের ছোট্ট  একটা সমাধান।

জানিয়ে দিচ্ছি বিশ্বসেরা ৫ হানিমুন জায়গার কথা যেগুলো এশিয়াতেই অবস্থিত। আমরা অনেকেই মনে করে থাকি পৃথিবীর সব সুন্দর সুন্দর জায়গা ইউরোপে অবস্থিত। কিন্তু আমাদের এশিয়াতেই আছে অনেক সুন্দর সুন্দর জায়গা যা ইউরোপকেও হার মানিয়ে দেয়। এশিয়ার সেরা ৫ হানিমুনের জায়গাগুলো  হল-

১। থাইল্যান্ড

এশিয়ার মধ্যে বিশ্বসেরা হানিমুন স্পটের প্রথম সারিতে আছে থাইল্যান্ডের নাম। এয়ারপোর্ট থেকে কিনে নিতে পারেন থাই ম্যাপ বা আপনার মোবাইলের ইন্টারনেটের মাধ্যমে থাইম্যাপ মানিয়ে নিতে পারেন। থাই ম্যাপ থাকলে আপানর রাস্তা হারানোর ভয় থাকবে না।

সম্পূর্ণভাবে গাইডের ওপর নির্ভর করা লাগবে না। এশিয়ার অন্যতম রোমান্টিক সমুদ্র সৈকত পাতায়া থাইল্যান্ডে অবস্থিত। রাতের গভীরতা যত বাড়ে, আলোর ঝলকানিও সেই সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বেড়ে যায়। তালে তালে চলে সংগীতের মূর্ছনা। পাতোয়ায় আছে অসংখ্য কোরাল দ্বীপ। এর একটি দ্বীপ কোলহার্ন। চারদিকে অসীম জলরাশির মধ্য দিয়ে ছুটে চলে স্ক্রুবা ড্রাইভ, সার্ফিং, ফিশিং।

২। বালি দ্বীপ

পর্যটকদের পছন্দের জায়গাগুলোর মধ্যে ইন্দোনেশিয়ার বালি দ্বীপ অন্যতম। এশিয়ার হানিমুন স্পট হিসাবে এটি সমান জনপ্রিয়। সুন্দর, পরিচ্ছন্ন ছবির মত দেখতে বালি দ্বীপটি। এখানকার মানুষেরা তাদের দ্বীপ পরিষ্কার রাখার ব্যাপারের দারুন সচেতন।

আপনি চাইলে সম্পূর্ণ একটা বীচ নিজের জন্য ভাড়া করে নিতে পারেন। ইন্দোনেশিয়া পৃথিবীর সবচেয়ে বেশিসংখ্যক মুসলিম বসবাসকারী দেশ হলেও বালির চিত্র অনেকটাই ভিন্ন। এখানে বেশিরভাগ হিন্দু ধর্মালম্বী মানুষ বাস করে থাকে। এখানে রয়েছে অনেক দৃষ্টিনন্দন মন্দির। বালির বিশ্ববিখ্যাত কুটা সমুদ্রসৈকত না দেখলে বালি দেখাই বৃথা হবে। কুটা সমুদ্রসৈকতের পানির রঙ গাঢ় নীল।

৩। মালয়েশিয়া

এশিয়ার অপূর্ব শোভামন্ডিত ছোট্ট একটি দ্বীপ রাষ্ট্রের মালয়েশিয়া। প্রকৃতির আপন খেয়ালে গড়া সমস্ত দেশ জুড়ে রয়েছে বিস্তৃত পাহাড়। আর সেই পাহাড়ের কোলঘেঁষে গড়ে উঠেছে আধুনিক যুগের চকচকে শহর। আঁকাবাঁকা উঁচুনিচু সবুজ পাহাড় ঘেরা পরিস্কার একটি শহর মালয়েশিয়া। না শীত না গরম- সব মিলিয়ে চমৎকার একটা আবহাওয়ায় বিদ্যমান মালশিয়ায়।

প্রাকৃতিক সৌন্দর্য, জাকজমকপূর্ণ ঐতিহ্য, আর এবং প্রাচুর্যে ভরা শহর মালয়েশিয়ার পেনাং। ‘প্রাচ্যের মুক্তা’ হিসাবে পরিচিত পেনাং এশিয়ার বিখ্যাত দ্বীপ। যেখানে রয়েছে প্রচুর রেস্তোরাঁ, রাস্তার পাশে ক্যাফে, ডিপার্টমেন্টাল স্টোরস এবং অকৃত্রিম সমুদ্র সৈকত।

৪। শ্রীলঙ্কা

ভারতের দক্ষিণ উপকূলে অবস্থিত শ্রীলঙ্কা এশিয়ার অন্যতম হানিমুন স্পট। অপরূপ প্রাকৃতিক সৌন্দর্য সম্বলিত সমুদ্রসৈকত, সমৃদ্ধ সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য শ্রীলঙ্কাকে সারা পৃথিবীর পর্যটকদের কাছে অত্যন্ত আকর্ষণীয়। প্রাচীনকাল থেকেই শ্রীলঙ্কা বৌদ্ধ ধর্মাম্বলীদের তীর্থস্থান। এখানে রয়েছে অনেক সুন্দর সুন্দর মন্দির। স্বল্প খরচে ঘুরে আসতে পারেন এই সুন্দর দেশটি থেকে।

৫। মালদ্বীপ

এশিয়ায় আরেকটি নয়নাভিরাম প্রাকৃতিক সৌন্দর্যমণ্ডিত দ্বীপ রাষ্ট্র মালদ্বীপ। ছোট হলেও সৌন্দর্যের দিক থেকে অনেক উপরে এই দ্বীপটি। প্রতি বছর বিশ্বের না প্রান্ত থেকে লাখ লাখ পর্যটক মালদ্বীপের সৌন্দর্য উপভোগ করতে ছুটে আসেন। দেশটির উত্তর, দক্ষিণ, পূর্ব, পশ্চিম মিলে রয়েছে প্রায় আড়াই হাজার ছোট ছোট দ্বীপ।

আর এই দ্বীপ গুলোকে নিয়ে সৃষ্ট মালদ্বীপ। এখানে রয়েছে অনেকগুলো রিসোর্ট আর প্রতিটা রিসোর্ট গড়ে উঠেছে আলাদা আলাদা দ্বীপে। তাই নিজের পছন্দের দ্বীপটিতে ভাড়া করে নিতে পারেন থাকার রিসোর্টটির।