আন্তর্জাতিক রুটে ডানা মেলেছে ইউএস-বাংলা 16/05/2016



আন্তর্জাতিক রুটে ডানা মেলেছে ২০১৫ সালের বেস্ট ডমেস্টিক এয়ারলাইন্স খেতাব পাওয়া দেশের শীর্ষ বেসরকারি বিমান পরিবহন সংস্থা ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন। এ উপলক্ষে গতকাল রোববার দুপুরে হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের ভিভিআইপি টার্মিনালে এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে আন্তর্জাতিক রুটে ফাইট চলাচলের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন ঘোষণা করেন বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিমান ও পর্যটনমন্ত্রী বলেন, বিমান যাত্রা ও পরিবহনের  ক্ষেত্রে বেসরকারি উদ্যোগের সাফল্য করেছেন  আর এ সাফল্যের ক্ষেত্রে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন নিশ্চিতভাবে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা পালন করেছে। তিনি বলেন, অভ্যন্তরীণ রুটে যাত্রী পরিবহনে টাইম শিডিউল রা করতে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স ৯৮ শতাংশ সফল। শুধু তা-ই নয়, অভ্যন্তরীণ রুটে সবচেয়ে বেশি অভ্যন্তরীণ ফাইট পরিচালনা করেছে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন। সেই এয়ারলাইন আজ দেশের সীমানা ছাড়িয়ে আন্তর্জাতিক সীমানায় পাখা বিস্তার করেছে। এটা নিঃসন্দেহে আনন্দের এবং অভিনন্দন পাওয়ার যোগ্য। এ জন্য ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের সব কর্মকর্তা-কর্মচারীকে তিনি অভিনন্দন জানান।
এর আগে স্বাগত বক্তব্যে ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্সের সফল ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ আবদুল্লাহ আল মামুন উপস্থিত সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, ‘ফাই ফাস্ট ফাই সেইফ’ স্লোগান নিয়ে ২০১৪ সালের ১৭ জুলাই অভ্যন্তরীণ গন্তব্যে যাত্রা শুরু করেছিল ইউএস বাংলা এয়ারলাইন। অতি অল্প সময়ে দেশের বেসরকারি বিমান পরিবহন ইতিহাসে সর্বাধিক গন্তব্যে সবচেয়ে বেশি ফাইট পরিচালনা করতে সক্ষম হয়েছে। এখন পর্যন্ত আমরা ১০ হাজার ৬০০টি ফাইট পরিচালনা করতে সক্ষম হয়েছি। আমাদের অনটাইম পারফরম্যান্সের হার ৯৮.৭ শতাংশ, যা দেশের বিমান পরিচালনার ইতিহাসে সর্বোচ্চ। শুধু তা-ই নয়, ইন ফাইট সার্ভিস, যাত্রী নিরাপত্তা, ফাইট ফ্রিকোয়েন্সিসহ সব কিছুর বিবেচনায় সম্প্রতি অভ্যন্তরীণ রুটের যাত্রীদের সরাসরি ভোটে দ্য মনিটর কর্তৃক ‘বেস্ট ডমেস্টিক এয়ারলাইন অব দ্য ইয়ার-২০১৫’ অ্যাওয়ার্ড পেয়েছে ইউএস বাংলা। আর এসবই সম্ভব হয়েছে আপনাদের সহযোগিতার জন্য।


এ সময় আরো বক্তব্য রাখেন সিভিল অ্যাভিয়েশন অথরিটির চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল এহসানুল গনি চৌধুরী, বাংলাদেশে নিযুক্ত কানাডিয়ান হাইকমিশনার বেনিয়ট-পিয়েরি লারামি ও ট্রাভেল এজেন্টদের প্রতিনিধি।
ইউএস বাংলা এয়ারলাইনের হেড অব মিডিয়া শেখ সাদী শিশির স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, উদ্বোধনী ফাইটটি ৭৬ জন যাত্রী নিয়ে কাঠমান্ডুর উদ্দেশ্য বেলা ৩টায় যাত্রা করে। বিকেল ৫টা ১০ মিনিটে কাঠমান্ডু থেকে ছেড়ে সন্ধ্যা ৭টা ১০ মিনিটে ঢাকায় পৌঁছবে। ঢাকা থেকে কাঠমান্ডু রুটে ন্যূনতম রিটার্ন ১৩ হাজার ৯৯৯ টাকা এবং ওয়ানওয়ের জন্য ৯ হাজার ৯৯৯ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। এতে সব ধরনের ট্যাক্স ও সারচার্জ অন্তর্ভুক্ত।
প্রাথমিকভাবে সপ্তাহে তিন দিন অর্থাৎ রবি, মঙ্গল ও বৃহস্পতিবার হিমালয়কন্যা নেপালে যাত্রী পরিবহন করবে ইউএস-বাংলা। কাঠমান্ডুর পর পর্যায়ক্রমে চালু হবে ভুটানের পারো, ভারতের কলকাতা, মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুর, সিঙ্গাপুর, থাইল্যান্ডের ব্যাংকক, ওমানের মাস্কাট, কাতারের দোহা, আরব আমিরাতের দুবাই, সৌদি আরবের জেদ্দা ও চীন ফাইট।

সূত্রঃ নয়া দিগন্ত

You might like