শৈলপ্রপাত 03/05/2016



বান্দরবনে যাবেন অথচ শৈলপ্রপাত দেখবেন না তা কি হয়। তাছাড়া আপনি যখন  বান্দরবনের চিম্বুক বা নীলগিরি যাবেন, পথেই শৈ্লপ্রপাত পড়বে। কাজেই ভাড়া করা গাড়ী রাস্তার পাশে থামিয়েই বেড়াতে পারেন। অসাধারন একটি জলপ্রপাত। বর্ষার এর রূপ থাকে আরও ভয়ংকর সুন্দর।

বান্দরবান রুমা সড়কের ৮ কিলোমিটার দূরে শৈলপ্রপাত অবস্থিত। এটি প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের অপূর্ব সৃষ্টি। ঝর্ণার হিমশীতল পানি এখানে সর্বদা বহমান। এই ঝর্ণার পানিগুলো খুবই স্বচ্ছ এবং হীম শীতল। বর্ষাকালে এ ঝর্ণার দৃশ্য দেখা গেলেও ঝর্ণাতে নামা দুস্কর, বছরের বেশীর ভাগ সময় দেশী বিদেশী পর্যটকে ভরপুর থাকে।

রাস্তার পাশে শৈল প্রপাতের অবস্থান হওয়ায় এখানে পর্যটকদের ভিড় বেশী দেখা যায়। এখানে দুর্গম পাহাড়ের কোল ঘেশা আদিবাসী বম সম্প্রদায়ের সংগ্রামী জীবন প্রত্যক্ষ করা। এখানে উপজাতী তরুণীরা হাতের তৈরী বস্ত্র ও নানান প্রকার তৈজস পত্র বিক্রয় করে থাকেন।

কীভাবে যাবেনঃ

বান্দরবান শহর থেকে টেক্সি, চাঁদের গাড়ি কিংবা প্রাইভেট কার ও জীপ ভাড়া করে শৈলপ্রপাতে যাওয়া যায়।  অথবা চান্দের গাড়ী বা জিপ নিয়ে নীলগিরি বা চিম্বুক যাবার পথে এখানে নামতে পারেন। আর যদি কেবল শৈলপ্রপাত কে উদ্দেশ্য করে আসতে চান তবে অটোরিক্সা উত্তম বাহন।

ভাল লাগার এই শৈলপ্রপাতে আপনার সময়টা বেশ ভালই কাটবে। পানির এমন স্রোতধারা যেন জীবনের ছন্দের কথা বলবে।

You might like